VPN কি ? । VPN ki । ভিপিএন কি ভাবে কাজ করে? কতটুকু নিরাপদ আমাদের জন্য

Vpnকি ?


হ্যালো,
লোকজন কি অবস্তা আসা করি সবাই ভাল আছেন। আমিও ভালো আছি, তো আমরা আজকের আলোচনা করবো VPN নিইয়া A to Z সব।

Vpnকি ? (VPN explain in Bangla) : 

আমরা অনেকে জানি যে ভিপিএন দিয়ে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যাবহার করে যায়, কিন্তু ব্যাপারটা কিন্তু একদম ই এমন নয়। VPN এর পূর্ণরূপ হল Virtual private network (ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক) এটা এক টা ভার্চুয়াল Tunnel'। এটা দিয়ে তথ্য আদান প্রদান করা যাই নিরাপদ ভাবে। বর্তমানে ভিপিএন ব্যাবহার এর জনপ্রিয়তা দিন দিন ক্রমাশ বৃদ্ধি পাচ্ছে।

VPN কি ভাবে কাজ করে 

ভিপিএন সার্ভার হছে প্রক্সি (proxy) হিসাবে কাজ করে। এটা আপনার Actual ip address টা কে হাইড করে রাখে। কারন এটা অন্য দেশের  সার্ভার থেকে আসে, আচ্ছা আরো সহজে বোঝায় - ধরে নিন যে আপনার দেশ থেকে আপনার (ISP) ইন্টারনেট সার্ভিস  প্রোভাইডার  সামপ্রতিক ভাবে (Instagram) ইনস্টাগ্রাম,সোশ্যাল মিডিয়টি বন্ধ করে রাখলো , এখন আপনি আপনার লোকাল নেটওয়ার্ক দিয়ে,কিন্তু ইনস্টাগ্রাম টি ব্যবহার করতে পারছেন না। 

এখোন কি করবেন? আপনি কিন্তু চাইলেই আপনার আইএসপি কে ধোকা দিয়ে Instagram ইউজ করতে পারেন। কিভাবে? আপনি ভিপিএন এর মাধ্যমে আপনার আইপি হাইড করে নির্দ্বিধায় Instagram use করতে পারেন। আপনি এখন ভাবছেন যে এটা কি ভাবে কাজ করলো? যেহতু ISP কোম্পানিগুলা (VPN) সার্ভার কে ব্লক করেনি। তাই অন্য দেশে থাকা কোন VPN সার্ভার এ যুক্ত হয়ে সেটা দিয়ে ব্লক হওয়া সাইট কিন্তু আনব্লক করা সম্ভব। VPN সার্ভার টি অন্য দেশে অবস্থিত। তাই ঐ খানের সরকার যদি ঐ সোশ্যাল মিডিয় টি বা সাইট টি  Block না করে থাকে। তাহলে VPN সার্ভার এর  মাধ্যমে সহজে ওই সোশ্যাল মিডিয় টি  ভিজিট করা সম্ভব।

NB:এটা হতে পারে সোশ্যাল মিডিয়া,হতে পারে কোন ওয়েবসাইট।

আশা করি আমি আপনাদের কিছুটা হলেও বোঝাতে পেরেছি।

কেনো VPN ব্যবহার করবো ?

আসলে আপনি কি কাজ করবেন সেটার উপর ডিপেন্ড করে। আপনি যদি গবেষণামূলক কাজ করেন, সেই ক্ষেত্রে কাজে লাগতে পারে। অনেক সমায় অনলাইনে টেঞ্জাকশন করতে চান সেই ক্ষেত্রে কাজে লাগতে পারে। অতেএব, এমন কোনো ওয়েবসাইট যা আপনার নেটওয়ার্ক প্রভাইডার ব্লক করে রেখেছে , ওই সব ওয়েবসাইট ভিজিট করতে গেলেই VPN লাগবে। তখন আপনি ভিপিএন ব্যবহার করতে পারেন।

এছাড়াও , আপনি যদি Public Wi-Fi এর ইন্টারনেট ব্যবহার করেন কোন সময়,তখন ভপিএন ব্যবহার করলে আপনর ফোনের Security বজায় থাকবে। বিভিন্ন গেম খেলতে গেল ও ভিপিএন প্রয়োজন হতে পারে। ও ওয়েবসাইটে ভিজিট করার সময়  ও প্রয়োজন হতে পারে। আপনার প্রয়োজন হলেই আপনি ব্যবহার করবেন।

কখন VPN ব্যবহার না করা ভাল 

আপনি VPN ব্যবহার করে, যাই করেন না কেন আপনার ডাটা লোকাল (ISP) ইন্টারনেট সার্ভিস প্রভাইডার এর কাছে না থাকলে ও ভিপিএন সার্ভার এর কাছে থাকছে সুতারাং ফ্রি ভিপিন ব্যাবহার না করে একটা প্রিমিয়াম ভিপিএন ব্যাবহার করাই বেটার। কেননা ফ্রি ভিপিএন সার্ভিস গুলা অনেক সময় তাদের বিজনেস পারপাস ডাটা লিক করে থাকে, আর তাই আমাদের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ও অন্যের হাতে চলে যেতে পারে। 

এছাড়াও , মোবাইল ব্যাঙ্কিং , নেটব্যাঙ্কিং কিংবা হাই সিকিউরিটি কোন সাইটে বার বার আইপি চেঞ্জ করে আপনার একাউন্ট লগইন করা থেকে বিরত থাকবেন। কেননা বার বার আইপি বা লোকেশন চেঞ্জ এর ফলে বিভিন্ন সাইটের বট আনইউজুয়াল এক্টিভিটস এর কারনে আপনার একাউন্ট টি ব্লক করতে পারে। তাই এসব ক্ষেত্রে ভিপিএন ব্যাবহারে সচেতন থাকবেন।  


ভিপিএন দিয়ে কি নেটস্পিড বাড়ানো যায়?

হ্যাঁ যাই, তবে সেটা নিরদিষ্ট ক্ষেত্র বিশেষ এবং অবশ্যই একটি প্রিমিয়াম এবং ট্রাস্টেবল ভিপিএন সার্ভিস হওয়া চায়, অথবা আপনি চাইলে আপনার নিজের একটি ভিপিএন সার্ভার ক্রিয়েট করে সেটা ব্যাবহার করতে পারবেন। এতে করে আপনার পাব্লিক সার্ভিস সার্ভার যদি ডাউন ও থেকে আপনি প্রাইভেট সার্ভার ব্যাবহার করে কিছুটা হলেও আপনার নেট স্পিড আপ করতে পারেন।

ফ্রী ভিপিএন Use করবো না কি Paid?

আমি বলবো সেটা আপনার কাজের উপর নির্ভর করে। আপনি যদি আপনার ডাটা নিয়ে হাইলি সিকিউর থাকার চিন্তা করেন তাহলে আমি অবশ্যই আপনাকে একটি পেইড ভিপিএন সার্ভিস ব্যাবহার করার উপদেশ দিবো। আর আপনি যদি জাস্ট কিছু সময়ের জন্য কোন সাইট আনব্লক করতে চান সেক্ষেত্রে চাইলে একটি ভালো দেখে ফ্রি ভিপিএন ও ব্যাবহার করতে পারেন। 

তবে আপনার সামর্থ্য থাকলে অবশ্যই চেষ্টা করবেন একটি প্রিমিয়াম ভিপিএন ইউজ করার, এতে করে একদিকে আপনি যেমন ভাল স্পিড পাবেন অন্যদিকে আপনার ব্যবহার করা ডাটাও সেফ থাকবে। আশা করি কিছুটা হলেও বোঝাতে পেরেছি।

তবে আমি আপনাদের আরেকটি জিনিস সম্পর্কে জানাতে সাচ্ছন্দ বোধ করবো যে - এখন কিন্তু বাজারে অনেক ধরণের ফ্রি ভিপিএন প্রিমিয়াম ভিপিএন Available, সব ফ্রি ভিপিএন ই যে খারাপ আবার সব প্রিমিয়াম ভিপিএন সার্ভিস ই যে চোখ বুঝে বিশ্বাস করে ফেলবেন ব্যাপারটা একদমই কিন্তু এমন নয়। অনেক সময় প্রিমিয়াম ভিপিএন সার্ভিস হওয়া সত্ত্বেও অনেক সার্ভিস আমাদের ডাটা লিক করে থাকে। তাই কোন সার্ভিস ব্যাবহারের পূর্বে অবশ্যই আমাদের সেই সার্ভিস সম্পর্কে ভালভাবে জেনে তারপর ব্যাবহার করা উচিত।

আবার ফ্রি ভিপিএন গুলা ব্যাবহারেও আমাদের সর্তক থাকা উচিত কেননা, বেশির ভাগ ফ্রি ভিপিনে গুলা অনেক লোক ব্যাবহার করে তাই সার্ভার লোড টাইম তুলনামুলক বেশি থাকে, জেটা কিন্তু বেশ ভোগান্তির কারন। আবার অনেক সময় অনেক ফ্রি ভিপিএন সার্ভিস ডাটা লিক করে। তাই কোন সার্ভিস ব্যাবহারের পূর্বে সেটা ফ্রি হোক কিংবা প্রিমিয়াম সেটা সম্পর্কে ভালভাবে জেনে ব্যাবহার করা বুদ্ধিমানের কাজ বলে মনে করি।

শেষ কথাঃ

এই সুবিশাল ইন্টারনেট জগতে আমরা কেউ ই শতভাগ নিরাপদ নয়। তারপরও ইন্টারনেট জগতে একটু নিরাপদ থাকতে আমাদের সর্বপরি সচেতন থাকতে হবে। জানতে হবে নতুন নতুন টেকনলজি সমর্পকে। এতে করে কিছুটা হলেও আমরা এই বিশাল জগতে আমাদের নিরাপদ রাখতে পারি। তো  এই ছিল আজকের মতো ভিপিএন নিয়ে আমাদের ছোট্ট লেখা। আশা করি আপনাদের ভাললেগেছে। আপনাদের কাছে কেমন লেগেছে জানাতে ভুলবেন না কিন্তু। আর হ্যা কোন ধরণের প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করে জানাবেন আমি চেষ্টা করবো যত দ্রুত সম্ভব আপনার প্রশ্নের উত্তর দিতে। ধন্যবাদ 

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post